সর্বশেষ

রাজগঞ্জে ক্ষতিগ্রস্থ হিন্দু পরিবারের মাঝে তরুন অনলাইন এক্টিভিষ্টদের আর্থিক সহায়তা বিতরণ

লোকসংবাদ প্রতিবেদন
‍"আপনাদের ওপর যে বর্বরোচিত হামলার ঘটনা ঘটেছে, যে আর্থিক, সামাজিক এবং মানসিক ক্ষতির শিকার হয়েছে তা হয়েতো পোষাণো যাবে না। তারপরও আমাদের আহবানে সাড়া দিয়ে দেশ-বিদেশ থেকে নানান মানুষ আপনাদের জন্য আর্থিক সহায়তা পাঠিয়েছেন, আমরা শুধু তা আপনাদের হাতে তুলে দিতে এসেছি মাত্র। রাজগঞ্জের শত বছরের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির ঐতিহ্যে গত ২৮ ফেব্রুয়ারি যে ক্ষতের সৃষ্টি করেছে, সেই ক্ষত কাটিয়ে আপনাদেরকে এগুতে হবে সামনের দিকে।"
গতকাল রোববার দুপুরে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার রাজগঞ্জে জামায়াত নেতা সাইদীর রায় ঘোষণার পর হিন্দুদের বাড়িঘরে হামলা, ভাংচুর, লুটতরাজ ও অগ্নিসংযোগে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলোর মাঝে নগদ আর্থিক সহায়তা এবং পোষাক বিতরণকালে এসব কথা বলেন তরুন ব্লগার ও অনলাইন এক্টিভিষ্ট শহীদুল ইসলাম মুকুল।
এ সময় রাজগঞ্জ ট্র্যাজিডি নিয়ে মানবিক আবেদন জানিয়ে গঠিত অনলাইন এক্টিভিষ্ট ওয়ার্কিং গ্রুপের সদস্য উন্নয়ন কর্মী শহীদুল ইসলাম মুকুল, সাংবাদিক রুদ্র মাসুদ ও কবি প্রণব আচার্য্য ক্ষতিগ্রস্থ ১৭টি পরিবারের সদস্যদের হাতে সংগৃহীত ১ লাখ ১৪ হাজার টাকা তুলে দেন। এই গ্রুপের অপর দুই সদস্য হচ্ছেন সাংবাদিক আবু নাছের মঞ্জু এবং এডভোকেট রিপন চক্রবর্তী।

গত ২৮ ফেব্রুয়ারি রাজগঞ্জে মর্মস্তুদ সেই ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলোর পাশে দাঁড়ানোর জন্য সহায়তার আবেদন জানিয়ে ফেসবুকে ৩ মার্চ ওয়ার্কিং গ্রুপ খোলা হয়। এরপর থেকেই দেশ বিদেশ থেকে সহযোগীতার হাত প্রসারিত করেন অনেকেই। প্রবাসে থেকে তহবিল গঠনে অবদান রাখেন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী অনলাইন এক্টিভিষ্ট তাপস আচার্য্য। সব মিলিয়ে সহায়তা তহবিলে জমা পড়ে ১ লাখ ১৪ হাজার টাকা। যা ক্ষয়ক্ষতি বিবেচনায় ১৭টি পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

লোকসংবাদ | Loksangbad | The First Bangla Online Newspaper from Noakhali সাজসজ্জা করেছেন মুকুল | কপিরাইট © ২০১৫ | লোকসংবাদ | ব্লগার

Bim থেকে নেওয়া থিমের ছবিগুলি. Blogger দ্বারা পরিচালিত.