সর্বশেষ

চাটখিলে মুখোশধারী সন্ত্রাসীদের হামলায় ৬ ব্যক্তি গুলিবিদ্ধ

নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলায় মুখোশধারী সন্ত্রাসীদের গুলিতে ছয় ব্যক্তি আহত হয়েছে। বদলকোট ইউনিয়নের হাজিবাড়ি মার্কেটে শনিবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার সাথে জড়িত থাকা সন্দেহে রোববার পুলিশ সাইফুল ইসলাম মনা ও আমির হোসেন মিলন নামে দুই জনকে গ্রেপ্তার করে। আহতদের নোয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও চাটখিল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ ব্যাপারে চাটখিল থানায় মামলা হয়েছে।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শরা জানায়, হাজিবাড়ি মার্কেটে রাত দশটার দিকে একটি মটরসাইকেলযোগে তিনজন মুখোশধারী সন্ত্রাসী এসে এলোপাথাড়ি গুলি করে দ্রুত পালিয়ে যায়। এ সময় দোকানে বসা অবস্থায় বদলকোর্ট গ্রামের আমির হোসেন (৬০), আমির হোসেন (২৬), নুরুল আমিন (৪৫) ও খোরশেদ আলম (৪০), তাজুল ইসলাম (৩৫), বাবু (২৪) গুলিবিদ্ধ হন।

চাটখিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজমুল হক জানান, এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতদের আদালতের মাধ্যমে রোবার জেল হাজতে পাঠানো হয়।
#

নোয়াখালীতে বখাটের ছয় মাসের কারাদন্ড

নোয়াখালী প্রতিনিধি: নোয়াখালীতে স্কুল ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করার দায়ে এক বখাটেকের জেল জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। দন্ডিত মিরাজ(২০) সদর উপজেলার নোয়ান্নই ইউনিয়নের ছালেপুর গ্রামের খোকন মিয়ার ছেলে।

সুধারাম থানার এসআই রফি জানান, মিরাজ গত প্রায় এক বছর ধরে স্থানীয় জনতা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেনীর এক ছাত্রীকে স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে উত্ত্যক্ত করে আসছে। শনিবার ছাত্রীর অভিবাবকেরা এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগ করলে বিকেলে পুলিশ মিরাজকে আটক করে। এরপর রাতে ঘটনাস্থলে আদালত বসিয়ে সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মোস্তফা জামান মিরাজকে ছয় মাসের কারাদন্ড,  পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা; অনাদায়ে আরো তিনমাসের কারাদন্ডের আদেশ দেন।
আদেশের পর মিরাজকে সুধারাম থানায় সোপর্দ করা হয়। সেখান থেকে রোববার জেলা কারাগারে প্রেরণ করা হয়।
#

নোয়াখালীতে সন্ত্রাসীকে ধরতে গিয়ে পুলিশ জিম্মি!

নোয়াখালী প্রতিনিধি: নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীর উপজেলায় তালিকাভুক্ত এক সন্ত্রাসীকে ধরতে গিয়ে উল্টো জিম্মি হয়ে পড়ে পুলিশ। পরে থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ঘটনাস্থলে ওই সন্ত্রাসীকে গ্রেপ্তার করেন। নিরাপত্তাজনিত কারনে সংশ্লিস্ট থানায় না রেখে রাতে তাকে জেলা সদরে সুধারাম থানায় এনে রাখা হয়।

গ্রেপ্তারকৃত মাহবুবুর রহমান পাটোয়ারীর(৩২) বিরুদ্ধে বেগমগঞ্জ ও সোনাইমুড়ী থানায় হত্যা, ডাকাতি ও পুলিশের উপর হামলার মামলাসহ পাঁচটি মামলা রয়েছে বলে। মাহবুব আমিশাপাড়া ইউনিয়নের মুসলিম পাটোয়ারীর ছেলে এবং স্থানীয়ভাবে বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে জড়িত।

পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, সোনাইমুড়ী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. ইকবালের নেতৃত্বে সাদাপোশাকে একদল পুলিশ শনিবার রাত দশটার দিকে আমিনবাজারের একটি দোকান থেকে মাহবুবকে আটক করেন। এক পর্যায়ে মাহবুবের সহযোগীরা পুলিশকে ঘিরে রাখে। খবর পেয়ে ওসি হুমায়ুন কবির ঘটনাস্থলে গিয়ে তাঁকে গ্রেপ্তার করে নিরাপত্তার কারণে তাৎক্ষনিক সুধারাম (সদর) থানা হাজতে পাঠিয়ে দেন।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হুমায়ুন কবির প্রথম আলোকে জানান, মাহবুবকে গতকাল রোববার দুপুরে সুধারাম থানা থেকে নোয়াখালীর বিচারিক হাকিমের আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।


  • আবু নাছের মঞ্জু

লোকসংবাদ | Loksangbad | The First Bangla Online Newspaper from Noakhali সাজসজ্জা করেছেন মুকুল | কপিরাইট © ২০১৫ | লোকসংবাদ | ব্লগার

Bim থেকে নেওয়া থিমের ছবিগুলি. Blogger দ্বারা পরিচালিত.