সর্বশেষ

তিউনিশিয়া সীমান্তে বাংলাদেশির মৃত্যু নোয়াখালীতে সেলিমের লাশ দাফন

আবু নাছের মঞ্জু, নোয়াখালী:
তিউনিশিয়া সীমান্তে মারা যাওয়া সেলিম চৌধুরীর (২৫) লাশ নোয়াখালীতে তাঁর গ্রামের বাড়িতে দাফন করা হয়েছে।
কবিরহাট উপজেলার সোন্দলপুর ইউনিয়নের মালিপাড়া গ্রামে শুক্রবার সেলিমের লাশ এসে পোঁছে।
সেলিমের লাশ আসছে এমন খবর ছড়িয়ে পড়লে ভোর থেকে আবুল কালাম মাষ্টারের বাড়িতে তাঁর আত্মীয় স্বজনদের সাথে এলাকায় হাজার হাজার মানুষ আসতে শুরু করেন। সকাল সাড়ে আটটায় লাশ আশার পর সেলিমের পিতা-মাতা ও স্বজনদের আহাজারিতে হৃদয়বিদারক দৃশ্যের অবতারনা হয়। এরপর পারিবারিক কবরস্থানে লাশের দাফন সম্পন্ন করা হয়।

এরআগে সেলিম চৌধুরীর লাশ বৃহস্পতিবার সন্ধায় বিমানযোগে ঢাকা পৌঁছে। রাতেই পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর করে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়। এসময় মন্ত্রণালয় লাশ দাফন করার জন্য ৩৫ হাজার টাকার চেক হস্তান্তর করা হয়।

সেলিম চৌধুরীর কৃষক পিতা আবুল কালাম জানান, সেলিম ১০ মাস পূর্বে লিবিয়া গিয়েছিলেন। শেষ সম্বল সামান্য আবাদি জমি বন্ধক দিয়ে ও আত্মীয় স্বজনদের কাছ থেকে ধার-কর্য করে অনেক স্বপ্ন নিয়ে তাকে লিবিয়া পাঠানো হয়েছিলো। লিবিয়ায় আন্দোলনের মধ্যে থাকতে না পেরে পার্শ্ববর্তী দেশ তিউনিশিয়ায় আশ্রয় শিবিরে ৩ মার্চ হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে সে মৃত্যুবরণ করে।

পরিবারে ছয় ভাই দুই বোনের মধ্যে সেলিম সপ্তম। বড় সন্তানেরা সবাই পরিবার পরিজন নিয়ে আলাদা থাকেন। সেলিমই ছিলেন পিতা-মাতার একমাত্র অবলম্বন। 

লোকসংবাদ | Loksangbad | The First Bangla Online Newspaper from Noakhali সাজসজ্জা করেছেন মুকুল | কপিরাইট © ২০১৫ | লোকসংবাদ | ব্লগার

Bim থেকে নেওয়া থিমের ছবিগুলি. Blogger দ্বারা পরিচালিত.