সর্বশেষ

নোবিপ্রবি’র ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১০-১১ সেশনের ভর্তি পরীক্ষার পূর্ণাঙ্গ ফল ২ জানুয়ারি রবিবার প্রকাশিত হয়েছে। এরআগে ১ জানুয়ারি রাত ১১টায় শিক্ষকবৃন্দ আনুষ্ঠানিকভাবে উপাচার্য প্রফেসর এ কে এম সাঈদুল হক চৌধুরীর নিকট ফলাফল হস্তান্তর করেন। ভর্তি পরীক্ষায় B গ্রুপে অংশগ্রহণকারী ৬৬৫ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছেন ২১৯ জন। A গ্রুপে ২,৭০১ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছেন ১,৭২৯ জন। পাশের হার B গ্র“পে ৩৩ শতাংশ এবং A গ্রুপে ৬৪ শতাংশ। বিস্তারিত ফলাফল বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েব সাইট (www.nstu.edu.bd) এ দেয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ৫ অক্টোবর ২০১০ হতে ২৯ নভেম্বর ২০১০ পর্যন্ত ভর্তি পরীক্ষার আবেদনপত্র টেলিটক মোবাইল এসএমএস ও সরাসরিভাবে সরবরাহ ও জমা নেয়া হয়। এ সময় A গ্রুপের ৩৪০টি আসনের বিপরীতে ৪,৫৮৮ জন এবং B গ্রুপের ৬০টি আসনের বিপরীতে ৮৪৯ জন প্রার্থী ভর্তির আবেদন করে।

B গ্রুপের মেধাতালিকার মেধাক্রম ১ থেকে ৬০ পর্যন্ত ২৩ জানুয়ারী ২০১১ সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কনফারেন্স রুমে বিষয় নির্বাচন ও ভর্তির জন্য উপস্থিত হতে বলা হয়েছে। ভর্তির অনুমতি প্রাপ্ত প্রার্থীদেরকে ২৩ জানুয়ারী ২০১১ থেকে ২৫ জানুয়ারী ২০১১ এর মধ্যে ভর্তি হতে হবে। এ সময় মুক্তিযোদ্ধা এবং উপজাতি কোটায় মেধাক্রম অনুযায়ী ভর্তি করা হবে। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ভর্তি না হলে ভর্তির অনুমতি বাতিল বলে গণ্য হবে।

A গ্রুপের মেধাতালিকার মেধাক্রম ১ থেকে ৭৫ পর্যন্ত ২৩ জানুয়ারী ২০১১ দুপুর ১২টায় ও ৭৬ থেকে ২০৭ পর্যন্ত প্রার্থীদেরকে ২৪ জানুয়ারী ২০১১ এবং ২০৮ থেকে ৩৪০ পর্যন্ত প্রার্থীদেরকে ২৫ জানুয়ারি ২০১১ উভয় দিন সকাল ১০টায় বিষয় নির্বাচন ও ভর্তির জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের কনফারেন্স রুমে উপস্থিত হতে বলা হয়েছে। ভর্তির অনুমতিপ্রাপ্ত প্রার্থীদেরকে ২৩ জানুয়ারী ২০১১ থেকে ২৫ জানুয়ারী ২০১১ এর মধ্যে ভর্তি হতে হবে। এ সময় মুক্তিযোদ্ধা এবং উপজাতি কোটায় মেধাক্রম অনুযায়ী শিক্ষার্থী ভর্তি করা হবে। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ভর্তি না হলে ভর্তির অনুমতি বাতিল বলে গণ্য হবে।

অপেক্ষমাণ তালিকার প্রার্থীদেরকে ৬ ফেব্রুয়ারি আসন খালি থাকা সাপেক্ষে মেধাক্রম অনুযায়ী বিষয় নির্বাচন ও ভর্তির সুযোগ দেয়া হবে এবং ভর্তির অনুমতিপ্রাপ্ত প্রার্থীদেরকে ঐ তারিখেই ভর্তি হতে হবে। মুক্তিযোদ্ধা কোটায় আসন খালি থাকা সাপেক্ষে মুক্তিযোদ্ধা অপেক্ষমাণ তালিকা থেকে ভর্তি করা হবে। প্রার্থীদেরকে প্রতিদিন সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কনফারেন্স রুমে উপস্থিত থাকতে বলা হয়েছে। প্রয়োজনবোধে পরবর্তিতে দ্বিতীয় অপেক্ষমাণ তালিকা প্রকাশ করা হবে।

ভর্তি সময় প্রয়োজনীয় কাগজপত্র হিসেবে (১) এসএসসি এবং এইচএসসি’র মার্কশিট ও সার্টিফিকেটের মূল কপি এবং প্রত্যেকটির একটি করে সত্যায়িত কপি (২) দুই কপি পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ছবি, (৩) নাগরিকত্ব সার্টিফিকেটের কপি, (৪) মুক্তিযোদ্ধা কোটায় ভর্তিচ্ছু প্রার্থীদের পিতা-মাতার অনুকূলে সরকার কর্তৃক ইস্যুকৃত মুক্তিযোদ্ধার সার্টিফিকেটের মূল কপি এবং সত্যায়িত কপি, (৫) উপজাতি প্রার্থীদের ক্ষেত্রে উপজাতি ভিত্তিক প্রত্যয়ন পত্রের মূল কপি ও সত্যায়িত কপি এবং (৬) প্রথম টার্মের ক্রেডিট আওয়ার ফিসহ অন্যান্য ফি-চার্জ বাবদ ই গ্রুপের জন্য প্রায় পনের হাজার টাকা এবং A গ্রুপের জন্য প্রায় একুশ হাজার টাকা সঙ্গে নিয়ে আসতে বলা হয়েছে। এ বছর নিন্মোক্ত সাতটি বিভাগে ছাত্রছাত্রী ভর্তি করা হবে, গ্রুপ অ এর বিভাগসমূহ: ১. কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং (৬০ জন), ২. ফিশারিজ এন্ড মেরিন সায়েন্স (৬০ জন), ৩. ফার্মেসী (৬০ জন), ৪. এপ্লায়েড কেমিস্ট্রি এন্ড কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং (৬০ জন), ৫. মাইক্রোবায়োলজী (৪০ জন) এবং ৬. গণিত (৬০ জন)। গ্রুপ B এর বিভাগ ৭. ইংরেজী (৬০ জন)।

লোকসংবাদ | Loksangbad | The First Bangla Online Newspaper from Noakhali সাজসজ্জা করেছেন মুকুল | কপিরাইট © ২০১৫ | লোকসংবাদ | ব্লগার

Bim থেকে নেওয়া থিমের ছবিগুলি. Blogger দ্বারা পরিচালিত.