সর্বশেষ

হাতিয়ায় প্রতিপক্ষের হামলায় দস্যু বাহিনীর ৬ জন নিহত বাড়ি ঘরে আগুন \ অস্ত্র উদ্ধার

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার চরবাশারে সোমবার গভীর রাতে প্রতিপক্ষ বাহিনীর দস্যুরা ৬ জনকে গুলি করে ও কুপিয়ে হত্যা করেছে। এসময় আহত হয় আরো দুইজন। তাদের অবস্থা আশংকাজনক। হামলাকারীরা বাড়িঘরে আগুন লাগিয়ে দেয়। মঙ্গলবার ভোরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিহত ৬ জনের লাশ, দুটি দেশীয় অস্ত্র ও ৫টি গুলির খোসা উদ্ধার করে। নিহতদের মধ্যে গিয়াস উদ্দিন (৪০), তাঁর ছেলে রায়হান (১২), লিটন (২৮) ও মহিউদ্দিনের (৩০) এই চারজনের পরিচয় পাওয়া গেলেও একজনের দেহ আগুনে পুড়ে যাওয়ায় এবং একজন বহিরাগত হওয়ায় তাদের পারিচয় পাওয়া যায়নি।

খবর পেয়ে চরজব্বার থানা থেকে অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে। তবে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পুলিশ কাউকে  গ্রেফতার করতে পারেনি।
স্থানীয় লোকজন ও ঘটনাস্থল থেকে জনতা বাজার ক্যাম্পের হাবিলদার হুমায়ুন কবির জানান, সোমবার রাত আড়াইটার দিকে বনদস্যু নাছির কমাণ্ডার বাহিনীর ২০/২৫ জন সশস্ত্র ক্যাডার চরবাশারে হামলা চালায়। এসময় তারা মুন্সিয়া চোরা ও মিয়া সিকদার বাহিনীর ইউনিট কমান্ডার গিয়াস উদ্দিনের বাড়িতে ঢুকে এলোপাতাড়ি গুলি ও এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করতে থাকে। শোর চিৎকারে আশাপাশে লোকজন এগিয়ে আসলে নাসির বাহিনীর ক্যাডাররা পালিয়ে যাবার সময় ঘরে আগুন ধরিয়ে দেয়। আগুনে পুড়ে, গুলি ও ধারালো অস্ত্রের আঘাতে ৬ জন মারা যায়। আহত হয় টিপু (২৮) ও সেলিম (৩০) নামে দুইজন। তাদের অবস্থা আশংকাজনক।
খবর পেয়ে গতকাল মঙ্গলবার ভোর ৫টার হাতিয়ার নঙ্গলিয়ার চরের জনতা বাজার ক্যাম্পের পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে। নিহত ছয় জনের লাশ উদ্ধার করে। তন্মধ্যে চারজনের পরিচয় পাওয়া গেলেও আগুনে পুড়ে যাওয়ায় একজনের এবং বহিরাগত হওয়ায় একজনের পারিচয় পাওয়া যায়নি। ঘটনাস্থল থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় দেশীয় তৈরী একটি রিভলবার, একটি একনলা বন্দুক এবং ৫টি গুলির খোসা উদ্ধার করা হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে চরজব্বার থানা থেকে অতিরিক্ত ফোর্স সেখানে পৌঁছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে থাকলেও পুলিশ কাউকে গ্রেফতার কিংবা আহতদের উদ্ধার করতে পারেনি।
এনিয়ে যোগাযোগ করা হলে সহকারি পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) আ ফ ম নিজাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, পৌরসভা নির্বাচনের কারণে পুলিশের স্বল্পতা রয়েছে। তবে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ  মোতায়েন রয়েছে।


  • আবু নাছের মঞ্জু

লোকসংবাদ | Loksangbad | The First Bangla Online Newspaper from Noakhali সাজসজ্জা করেছেন মুকুল | কপিরাইট © ২০১৫ | লোকসংবাদ | ব্লগার

Bim থেকে নেওয়া থিমের ছবিগুলি. Blogger দ্বারা পরিচালিত.