সর্বশেষ

নোয়াখালীতে হাসানুল হক ইনু এমপি: বিজয় ধরে রাখতে হলে মহাঐক্যকে সক্রিয় ও দৃশ্যমান করতে হবে


জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু এমপি বলেছেন-আমরা মুক্তিযোদ্ধারা মানুষ হত্যা করিনা। একাত্তরে যুদ্ধের মাঠে আমরা মুক্তিযোদ্ধারা পশু হত্যা করেছিলাম। যে পশুরা বাংলার স্বাধীনতা কেড়ে নেয়ার চেষ্টা করেছিল, মানুষকে হত্যা করেছিল। সেই পশুদের বংশধর গোলাম আযম নিজামী গংরা স্বাধীনতার ৪০ বছরেও মানুষ হলোনা। তারা মানুষের রগকাটে, গলাকাটে, পেছন থেকে ছোবল মারে, মানুষ হত্যা করে, চক্রান্ত-ষড়যন্ত্র করে, বোমা মারে, শহীদ মিনার ভেঙ্গে ফেলার চেষ্টা চালায়, বাংলাদেশের ঐতিহ্যের গায়ে আগুন লাগায়। ওরা রেজিষ্ট্রার্ড দালাল। ওদের শেকড় বিদেশে। এই পশুদের একাত্তরে আমরা ক্ষমা করিনি। এখনো ক্ষমা করবোনা।
রোবিবার রাতে নোয়াখালী জেলা শহরের মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মঞ্চে ‘মক্তিযুদ্ধ একটি অসমাপ্ত বিপ্লব’ শীর্ষক আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে হাসানুল হক ইনু এসব কথা বলেন। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ খায়রুল আনম সেলিমের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা জাসদের সভাপতি মিয়া মোহাম্মদ শাহজাহান, সোনাপুর কলেজের অধ্যক্ষ প্রদীপ নারায়ন সাহা। এসময় মঞ্চে জাসদের উপদেষ্ঠা সলিম উল্লা, কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক আজিজুর রহমান, জেলা শাখার সাধারন সম্পাদক অ্যাডভোকেট আজিজুল হক বকষি উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে হাসানুল হক ইনু বলেন-২০০৮ সালের নির্বাচনে স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি পরাজিত হলেও ওরা এখনো মাঠ ছাড়েনি। তাই মহাজোটের ছাতাতলে যারা এখনো এদিক ওদিক করছেন তাদের সতর্ক করছি-এটা এদিক ওদিক করার সময় নয়, একলা চলার সময় নয়, নিজেদের আখের গোছানোর সময় নয়, দলবাজি, টেণ্ডাবাজি, চাঁদাবাজির সময় নয়, এটা বাংলাদেশের পতাকাকে চীরদিনের জন্য নিরাপদ করার সময়।

তিনি বলেন-বাংলার মানুষ বার বার বিজয় এনে দেয়। রাজনীতিবীদরা বিজয় হাতছাড়া করে ফেলে। কিন্তু এবার বিজয় হাতছাড়া করলে চলবে না। এবার জঙ্গিবাদ-সা¤প্রদায়িক শক্তি বিষদাঁত ভেঙ্গে দিতে হবে, তাদের আস্তানা গুড়িয়ে দিতে হবে, মহাঐক্যকে সক্রিয় ও দৃশ্যমান করতে হবে, মহাঐক্যকের ছাতার তলে মহাঐক্যকের নেতাকর্মীদের আশ্রয় দিতে হবে, একলা চলার ছোঁক পরিহার করতে হবে।

ছবি: নোয়াখালীতে মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মঞ্চে বক্তব্য রাখছেন জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু এমপি

নোয়াখালীতে ভ্রাম্যমান আদালতে মাদক
ব্যবসায়ীর ১ বছরের জেল

নোয়াখালী প্রতিনিধি: নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের আলাদীনগর গ্রামে আবদুল খালেক (৫৫) নামে এক ব্যক্তিকে মাদক বিক্রির অভিযোগে হাতেনাতে ধরে ১ বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও ১০ হাজার টাকা জরিমানা; অনাদায়ে আরো ৩ মাসের সাজা দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট কাজী মাহবুবুল আলম। সোমবার দুপুরে ভ্রাম্যমান আদালতের ওই কার্যক্রম চালানো হয়।
জানা গেছে, আলাদী নগর গ্রামের আবদুল খালে দীর্ঘদিন ধরে নিজ বাড়িতে বসে গাঁজাসহ বিভিন্ন মাদক দ্রব্যের ব্যবসা চালিয়ে আসছেন। গোপন সংবাদে এই খবর পেয়ে গতকাল দুপুর বারটার দিকে নোয়াখালী মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারি পরিচালক মোঃ রাশেদুজ্জামান ম্যাজিষ্ট্রেটের সহায়তা নিয়ে ওই বাড়িতে অভিযান চালিয়ে বসত ঘর থেকে ২৫০ গ্রাম গাঁজা ও বিক্রির জন্য তৈরী করা বেশ কিছু গাঁজার ফুরিয়া উদ্ধার ও আবদুল খালেককে আটক করে। এর পর সেখানেই ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে জেল-জরিমানার আদেশ দেওয়া হয়। আদেশের পর আবদুল খালেককে গতকালই নোয়াখালী কারাগারে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

আবু নাছের মঞ্জু
১৩.১২.২০১০

লোকসংবাদ | Loksangbad | The First Bangla Online Newspaper from Noakhali সাজসজ্জা করেছেন মুকুল | কপিরাইট © ২০১৫ | লোকসংবাদ | ব্লগার

Bim থেকে নেওয়া থিমের ছবিগুলি. Blogger দ্বারা পরিচালিত.