সর্বশেষ

সুধারাম থানার ওসির বিরুদ্ধে জেলা বিএনপি’র সংবাদ সম্মেলন ।। নোয়াখালী বিএনপি’র ৬ জন নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে হত্যা, ডাকাতি, ছিনতাই ও পত্রিকা অফিসে হামলার মামলা

নোয়াখালী জেলা বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের ৬ জন নেতাকর্মীকে হত্যা, ডাকাতি, ছিনতাই ও পত্রিকা অফিসে হামলার ঘটনায় ইতোপূর্বে দায়েরকৃত মামলার আসামী করেছে পুলিশ। গত মঙ্গলবারের হরতালের দিন এবং তার আগের রাতে পুলিশ ওই ৬ নেতাকর্মীকে আটকের পর উল্লেখিত মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে প্রেরণ করে। আদালত গ্রেপ্তারকৃতদের জামিন আবেদন না মঞ্জুর করে তাদের জেল হাজতে পাঠিয়ে দেয়।
বুধবার বিকেলে জেলা বিএনপি আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে দলটির কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মোহাম্মদ শাহজাহান এই ঘটনার জন্য সুধারাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মোশারফ হোসেন তরফদারকে দায়ী করেন।
জেলা বিএনপি’র সাধারন সম্পাদক পৌর মেয়র হারুনুর রশীদ আজাদ জানান , মঙ্গলবার হরতাল চলাকালে এবং তার আগের রাতে পুলিশ বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের ১৫জন নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করে। এরমধ্যে ৯ জনকে থানা থেকে সন্ধ্যায় ছেড়ে দেয়া হলেও বাকি ৬ জনকে তদন্তাধীন বিভিন্ন মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে প্রেরণ করা হয়। এরমধ্যে সোনাপুর কলেজ ছাত্র সংসদের এজিএস মাহবুুবুর রহমান ওরফে মানু (৩৮), জয়কৃষ্ণরামপুর এলাকার কলেজ ছাত্র নজরুল ইসলাম ওরফে রুবেল (২২) ও আবুল কাশেমকে (২০) সদর উপজেলার পুর্বমাইজচরা এলাকার একটি হত্যা ও জেলা শহরের দৈনিক জনতার অধিকার  কার্যালয়ে হামলার মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়। এছাড়া মোঃ হানিফ (২৮), মোঃ সোহাগ (২৪) ও ওমর ফারুককে (২৬) গ্রেপ্তার দেখানো হয় পৃথক দুইটি ডাকাতি ও ছিনতাইয়ের মামলায়। 

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি’র কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মোহাম্মদ শাহজাহান অভিযোগ করেন-সুধারাম মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোশারফ হোসেন তরফদার ক্ষমতাশীন দলকে খুশি করতে হরতালে অতিউৎসাহীর ভুমিকায় অবতীর্ণ হন। ওসি রাজনৈতিক কর্মীদের হত্যা-ডাকাতির মত জগন্য মামলায় জড়াতেও দ্বিধা করেননি। শাহজাহান অভিযোগ করেন, ওসি মোশারফ বিএনপি নেতাকর্মীদের হরতাল পালনে বাঁধা দেয়ার পাশাপাশি দফায় দফায় লাঠিচার্জ এবং নেতাকর্মীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে বাড়ির মহিলাদের সঙ্গেও দুর্ব্যবহার করেন।

তিনি বলেন, চার বারের নির্বাচিত সংসদ সদস্য হিবেসে আমার সময় কিংবা অতীতে কখনো রাজনৈতিক দলেন নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে পুলিশ এমন জঘন্য কাজ করার সাহস দেখায়নি। তিনি আশংকা করেন-এসব ঘটনা নোয়াখালীর শান্তিপূর্ণ রাজনীতিকে অশান্ত করে তুলতে পারে। এই অবস্থায় ওসি তাঁর আচারণে সংযত না হলে পরবর্তী যেকোন পরিস্থিতির জন্য তাঁকেই দায়ি হতে হবে বলে তিনি হুশিয়ার করে দেন।

সংবাদ সম্মেলনে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশীদ আজাদ, সদর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মাহবুব আলমগীর, শহর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবু নাছের, সহসভাপতি সহিদুল ইসলাম কিরণ ও দেলোয়ার হোসেন, ভিপি জসিম উদ্দিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে বিএনপি অভিযোগের বিষয়ে জিজ্ঞাসা করলে ওসি মোশারফ হোসেন জানান, হরতালে অনেককে আটক করা হয়েছে। এর মধ্যে যাদের নাম ইতিপুর্বের তদন্তাধীন বিভিন্ন

লোকসংবাদ | Loksangbad | The First Bangla Online Newspaper from Noakhali সাজসজ্জা করেছেন মুকুল | কপিরাইট © ২০১৫ | লোকসংবাদ | ব্লগার

Bim থেকে নেওয়া থিমের ছবিগুলি. Blogger দ্বারা পরিচালিত.