সর্বশেষ

নোবিপ্রবিতে শহীদ বুদ্ধিজীবি দিবসের অনুষ্ঠানে অবিলম্বে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবি


জাতির সূর্য সন্তান শহীদ বুদ্ধিজীবীদের আত্মত্যাগকে গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মরণের মধ্য দিয়ে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন অনুষ্ঠানমালার মাধ্যমে উদযাপন করা হয়েছে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস-২০১০। শহীদ বুদ্ধিজীবি দিবস ও মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে ক্যাম্পাসে তিনদিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করা হয়েছে। সকালে প্রশাসনিক ভবনে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতভাবে উত্তোলন করেন উপাচার্য প্রফেসর এ কে এম সাঈদুল হক চৌধুরী, কালো পতাকা উত্তোলন করেন ট্রেজারার প্রফেসর মোস্তাফিজুর রহমান। এরপর শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং শিক্ষার্থীগণ কালো ব্যাজ ধারণ করেন।
এরপর শহীদ মিনার চত্বরে নোবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির উদ্যোগে ‘সকল যুদ্ধাপরাধী ফাঁসির মঞ্চে যাবি’ বিষয়ের উপর এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। শিক্ষক সমিতির সভাপতি জনাব মোহাম্মদ আনোয়ারুল বাশার এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন উপাচার্য প্রফেসর এ কে এম সাঈদুল হক চৌধুরী, ট্রেজারার প্রফেসর  মোস্তাফিজুর রহমান, রেজিস্ট্রার প্রফেসর মোঃ মমিনুল হক, প্রক্টর ড. মোহাম্মদ ইউসুফ মিঞা, শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক জনাব আবদুল্লাহ-আল মামুন, ইংরেজী বিভাগের চেয়ারম্যান জনাব আফসানা মৌসুমী, ছাত্র আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, ছাত্রী সিলুফা বেগম।
উপাচার্য তাঁর বক্তব্যে দ্রুত যুদ্ধাপরাধীদের বিচার দাবি করেন । তিনি বলেন, বাঙালি জাতিকে মেধাশুন্য করার জন্যই এদেশীয় দোসরদের সহায়তায় পাক সেনারা স্বাধীনতার ঠিক পূর্বক্ষণেই আমাদের সূর্য সন্তানদেরকে হত্যা করেছে। মানবতার বিরুদ্ধে সে দিন যারা যুদ্ধ করেছিলো আমরা অনেক পরে হলেও তাদেরকে চিহ্নিত করতে পেরেছি। তিনি  এ সরকারের সময়েই যুদ্ধাপরাধীদের বিচার প্রক্রিয়া শেষ হওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

আলোচনা সভা শেষে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবিতে এক মানববন্ধন, গণসাক্ষরতা কর্মসূচী, শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মৃতির উদ্দেশ্যে কিছু গান, কিছু উচ্চারণ এবং প্রামান্য চলচ্চিত্র প্রদর্শন, আল-বদর A killing squad of Pakistan Army 1971 অনুষ্ঠিত হয়।

লোকসংবাদ | Loksangbad | The First Bangla Online Newspaper from Noakhali সাজসজ্জা করেছেন মুকুল | কপিরাইট © ২০১৫ | লোকসংবাদ | ব্লগার

Bim থেকে নেওয়া থিমের ছবিগুলি. Blogger দ্বারা পরিচালিত.