সর্বশেষ

নোয়াখালীতে যুবলীগ কর্মীকে অপহরণ করে মুক্তিপন আদায় জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি সহ তিনজন গ্রেপ্তার

নোয়াখালীতে যুবলীগের কর্মীকে অপহরণ করে মুক্তিপন আদায়ের অভিযোগে জেলা ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি বেলাল হোসেন (২৯), যুবলীগ কর্মী ফয়জুল্লা মাহমুদ রাহাত (৩০) ও মোঃ ছুট্টু মিয়া (২৮)কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
শনিবার দুপুরে শহরের হাসপাতাল রোড থেকে বেলাল ও ছুট্টুকে এবং খোন্দকারপাড়া থেকে রাহাতকে আটকের পর গভীর রাতে তাদের গ্রেপ্তার দেখানো হয়। গ্রেপ্তাকৃতদের গতকাল রোববার আদালতে প্রেরণ করা হলে আদালত আসামিদের জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন। আসামিদের জিজ্ঞাবাদের জন্য পুলিশ ৭ দিনের রিমান্ডের আবেদন করে।সুধারাম থানা পুলিশ জানায়, কয়েক মাস আগে জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি বেলাল হোসেন ও তার বন্ধু শাহনাজ শহরের মসজিদ মার্কেটের একটি মোবাইল দোকান কিনে দেওয়া কথা বলে যুবলীগ কর্মী ও ব্যবসায়ী শামীমের কাছ থেকে  ৬ লাখ টাকা নেয়। কথা অনুযায়ী দোকান কিনে দিতে ব্যর্থ হলে কিছুদিন পর শামীম টাকা ফেরত চাইলে বেলাল ও শাহনাজ দোকান তাকে ৫লাখ টাকার একটি চেক দেয়।
গত ১১ মে জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি বেলাল হোসেন ও তার অপর সহযোগীরা শামীমকে কৌশলে একটি সিএনজিতে তুলে বেগমগঞ্জের চৌরাস্তায় নিয়ে যায়। সেখান থেকে মাইক্রোবাসে তুলে ঢাকায় নিয়ে একটি বাসায় অবরুদ্ধ করে শামীমের কাছে ১০ লাখ টাকা মুক্তিপন দাবি করে। পরে পরিবারের পক্ষ থেকে শাহনাজ ও বেলালকে তাদের দেওয়া ৫লাখ টাকার চেক ফেরৎ ও নগদ আরো ২লাখ টাকা দিলে ১৩ মে শামীমকে মুক্তি দেওয়া হয়। এ ঘটনা কাউকে না জানানোর জন্য তাকে শাসিয়ে দেওয়া হয়।
সুত্র জানায়, এরপর শামীম বিষয়টি দলীয় নেতৃবৃন্দকে ও সুধারাম থানায় অবহিত করলে শনিবার দুপুরে অভিযুক্তদের তিনজনকে প্রথমে আটক এবং পরে লিখিত অভিযোগ পেয়ে রাতে গ্রেপ্তার করা হয়। গতকাল রোববার শামীমের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করেও তাকে পাওয়া যায়নি।
সুধারাম থানার ওসি মোশারফ হোসেন ছাত্রলীগের নেতাসহ তিনজনকে গ্রেপ্তারের কথা নিশ্চিত করে জানান, সহপাঠি শামীমকে আটকে রেখে মুক্তিপন আদায়ের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ইমন ভট্ট জানান, অভিযুক্তদের ছাত্রলীগ নেতার সদস্যপদ স্থগিত করে এ বিষয়ে ৩ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদনের ভিত্তিতে পরবর্তীতে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

লোকসংবাদ | Loksangbad | The First Bangla Online Newspaper from Noakhali সাজসজ্জা করেছেন মুকুল | কপিরাইট © ২০১৫ | লোকসংবাদ | ব্লগার

Bim থেকে নেওয়া থিমের ছবিগুলি. Blogger দ্বারা পরিচালিত.