সর্বশেষ

নোয়াখালীতে বনায়নকে কেন্দ্র করে ভূমিহিনদের হামলা ।। পুলিশ, বন বিভাগ, ভূমি অফিস ও সিডিএসপি’র কর্মকর্তাসহ ৩০ জন আহত

নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলার বয়ার চরে বুধবার বিকেলে বন সৃজনকে কেন্দ্র করে ভূমিহিনদের হামলায় পুলিশ, বন বিভাগ, ভূমি অফিস ও সিডিএসপি’র কর্মকর্তাসহ ৩০ জন আহত হয়।
খবর পেয়ে জেলা সদর থেকে অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আহতদের উদ্ধার করে আনে। আহতদের মধ্যে পুলিশের নায়েক সমুর চাকমা(নং৩৪২), শ্রীকান্ত চাকমা(নং ১৫৭), কনষ্টেবল হাসিনা(নং ৩৬০), মো: ইউসুফ(নং৩৬০) ও মোশারফ হোসেনকে (৮২৪) জেলা সদরের পুলিশ লাইন হাসপাতালে, বন কর্মচারী জসিম উদ্দিন(৪০) ও বোটম্যান আকবর হোসেনকে চর জব্বর হাসপাতালে এবং সিডিএসপির’র সহকারী ভূমি উপদেষ্টা নুরুল ইসলাম ও প্রকৌশলী জাহেদুল ইসলাম ভুঞাকে একটি বেসরকারী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
এছাড়া পুলিশের পাল্টা হামলায় ভূমিহীনদের মধ্যে সাদেক মাঝি(৫০), রবিউল হক(৪০), শরিফা খাতুন(৩৮), রেখা বেগম(৩৫) জান্নাত (৩৩) ও নাসিমা(২৮) ১৫ আহত হয়। তাদের বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

নোয়াখালীর বিভাগীয় বন কর্মকর্তা রকিবুল হাসান মুকুল জানান, সরকারিভাবে স¤প্রতি বয়ার চরের টাংকির বাজারের পানি উন্নয়ন বোর্ডের বেড়ি বাঁধের বাইরে নদীর তীরে ২০০ হেক্টর ভূমিতে ১ কোটি ৭৫ লাখ টাকা ব্যয়ে বনায়নের জন্য টেন্ডারের মাধ্যমে ঠিকাদারকে কাজ বুঝিয়ে দেয়া হয়। ইতিমধ্যে ১৪ হেক্টর ভূমিতে বনায়ন কাজ সম্পন্ন হয়। এক পর্যায়ে গত রবিবার ভূমিহীনরা কাজ বন্ধ করে দেয়। মঙ্গলবার বিকেলে নোয়াখালীর ম্যাজিষ্ট্রেট আবুল হাসেমের নেতৃত্বে অর্ধশত পুলিশসহ হাতিয়ার এসিল্যান্ড, বন বিভাগ ও সিডিএসপির কয়েকজন কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছলে ভূমিহীনরা তাদের উপর অর্তকিত হামলা চালায়। ঘনটার প্রত্যক্ষদর্শী উপ বিভাগীয় বন কর্মকর্তা এ কে এম রুহুল আমিন জানান, অন্তত তিন শতাধিক নারী পুরুষ লাঠিসোটা, সেল, বল্লম ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে এ হামলা চালায়। তাদের হামলায় এক পর্যায়ে পুলিশসহ কর্মকর্তাদের আত্মরক্ষার্থে সরে আসতে হয়। পুলিশ সুপার হারুনুর রশীদ হাযারী জানান, সহকারী পুলিশ সুপার মঞ্জুরুল করিমের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আহতদের উদ্ধার করেন। হামলার পুশিশের ৫ সদস্যকে পুলিশ লাইন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ভূমিহীনরা জানায়, কোন রকম পুনর্বাসন ছাড়া উচ্ছেদের কারনে বাধা দিতে গেলে পুলিশ তাদের উপর হামলা চালায়। অন্যদিকে বন বিভাগ এ অভিযোগ অস্বীকার করে।

লোকসংবাদ | Loksangbad | The First Bangla Online Newspaper from Noakhali সাজসজ্জা করেছেন মুকুল | কপিরাইট © ২০১৫ | লোকসংবাদ | ব্লগার

Bim থেকে নেওয়া থিমের ছবিগুলি. Blogger দ্বারা পরিচালিত.