সর্বশেষ

প্রতারণা ও অর্থ আত্মসাৎ মামলায় দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয়ের নোয়াখালী শাখার ১১ কর্মকর্তা-কর্মচারি জেলে

প্রতারণা ও অর্থ আত্মসাৎ মামলায় দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয়ের নোয়াখালী শাখার কর্মকর্তা-কর্মচারিসহ ১১জনকে জেল হাজতে পাঠিয়েছে আদালত। মোঃ নুরুল্লাহ নামে এক শিক্ষার্থীর দায়ের করা মামলায় গত রোববার অভিযুক্তরা নোয়াখালীর মূখ্য বিচারিক হাকিম মোঃ হুমায়ুন কবিরের আদালতে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করলে আদালত জামিন নামঞ্জুর করে আসামিদের জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন।
আদালতে হাজির হওয়া কর্মকর্তা-কর্মচারিরা হলেন: বিশ্ববিদ্যালয়ের নোয়াখালী শাখার পরিচালক মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান, উপপরিচালক মোঃ সাইফ উদ্দিন, পরিচালক প্রশাসন মোঃ জিয়াউর রমহমান, হিসাব কর্মকর্তা মোঃ জিয়াউল হক ফরহাদ, জনসংযোগ কর্মকর্তা মোঃ নিজাম উদ্দিন সুমন, সেকশন অফিসার মোঃ গোলাম রেজা পলাশ, মোঃ রেজাউল করিম, কম্পিউটার অপারেটর মোঃ সাহাব উদ্দিন, শেয়ার হোল্ডার একরামূল হক ফিরোজ ও মোঃ খোন্দকার ইব্রাহিম, অফিসার মোঃ খোকন।

গত ৪ এপ্রিল ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের নোয়াখালী শাখার এলএলবি (পাস) কোর্সের ছাত্র মোঃ নুরুল্লাহ বাদি হয়ে আসামিদের বিরুদ্ধে নোয়াখালীর ১নং আমলী আদালতে একটি প্রতারণা ও অর্থ আত্মসাতের মামলা দায়ের করেন। মামলায় নোয়াখালী শাখা বিশ্ববিদ্যালয়টির ঢাকা ক্যাম্পাসের অনুমোদন ছাড়া এলএলবি বিষয়ে মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে শিক্ষার্থী ভর্তি এবং ক্লাস ও পরীক্ষা শেষে শিক্ষার্থীদের ভূয়া নম্বরপত্র দিয়ে প্রতারণার অভিযোগ আনা হয়। এর পর আদালতের নির্দেশে রোরবার ওই মামলায় আসামিরা স্ব-শরিরে আদালতে হাজির হন।

লোকসংবাদ | Loksangbad | The First Bangla Online Newspaper from Noakhali সাজসজ্জা করেছেন মুকুল | কপিরাইট © ২০১৫ | লোকসংবাদ | ব্লগার

Bim থেকে নেওয়া থিমের ছবিগুলি. Blogger দ্বারা পরিচালিত.