সর্বশেষ

সেনবাগে ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেল স্কুল ছাত্রী রিমু

নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার হস্তক্ষেপে এবার বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেলো স্কুল ছাত্রী আফরিন সুলতানা রিমু (১৫)। রিমু উপজেলার ডমুরুয়া ইউনিয়নের পদুয়া গ্রামের সামছল হকের মেয়ে এবং স্থানীয় ডমুরুয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেনীর ছাত্রী।
ইউএনও অফিস সূত্র জানায়, রোববার স্কুল ছাত্রী আফরিন সুলতানা রিমুর সঙ্গে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার অনন্তপুর গ্রামের নাছির উদ্দিনের (২৭) বিয়ের দিন ধার্য্য ছিলো। দুপুরে এলাকার লোকজন বিষয়টি সেনবাগ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুহাম্মদ আনোয়ার পাশাকে অবহিত করলে তিনি সেখানে হাজির হয়ে বাল্যবিয়ের সত্যতা পান এবং বিয়ে বন্ধ করে দেন। পরে প্রাপ্ত বয়স না হওয়া পর্যন্ত আফরিন সুলতানা রিমুর পরিবার তার লেখা পড়া চালিয়ে যাওয়ার অঙ্গীকার করেন।

ইতোপূর্বে ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুহাম্মদ আনোয়ার পাশা ৩ টি বাল্যবিয়ের ঘটনায় কাজী (নিকাহ রেজিস্টার), সাক্ষী ও বিয়ে পড়ানোর মৌলভীর জেল জরিমানা করেন।

লোকসংবাদ | Loksangbad | The First Bangla Online Newspaper from Noakhali সাজসজ্জা করেছেন মুকুল | কপিরাইট © ২০১৫ | লোকসংবাদ | ব্লগার

Bim থেকে নেওয়া থিমের ছবিগুলি. Blogger দ্বারা পরিচালিত.