সর্বশেষ

কোম্পানীগঞ্জে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও কমিটির সভাপতির বিরুদ্ধে দূর্নীতির অভিযোগ

মোঃ শরফুদ্দিন শাহীন, কোম্পানীগঞ্জ থেকে:

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চরকাঁকড়া ইউনিয়নের সমরতবানু সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আবুল কাশেম ও স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি আবদুল হাই মানিকের বিরুদ্ধে দূর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ করেছে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা। সোমবার সহকারী শিক্ষা অফিসার এবিএম নুরুজ্জামান সরে জমিনে তদন্তে গেলে স্কুলের শিক্ষার্থী ও অভিভাবকেরা বিক্ষোভে ফেটে পড়েন। অভিযোগ সমূহের সত্যতা পাওয়ার পর উপজেলা শিক্ষা অফিসার গুলশান আক্তার লিখিত ভাবে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের নিকট আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সুপারিশ করেন।  গত রোববার বিকালে বিক্ষুদ্ধ অভিভাবকরা সমাপনী পরীক্ষার সনদপত্র প্রদানকালে ২-৩শ টাকা করে আদায়, উপবৃত্তি টাকা দেয়ার সময় জনপ্রতি ১শ টাকা কর্তন, শিক্ষার্থীদের নিম্নমানের পাঠদান, অবৈধ ভাবে স্কুলের গাছ বিক্রি করে অর্থ আতœসাত, প্রধান শিক্ষক শ্রেণীকক্ষে না গিয়ে অফিস কক্ষে বসে খোশগল্পে মেতে থাকার প্রতিবাদ করায় বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি আব্দুল হাই মানিক সুমন নামে একজন শিক্ষার্থীর বড় ভাইকে রোববার দুপুরে পিটিয়ে আহত করে। শনিবার প্রধান শিক্ষক আবুল কাশেম সহকারী শিক্ষক নুর উদ্দিনকে শারীরিক নির্যাতন করাসহ নানা অনিয়ম নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। এ সকল দূর্নীতি ও অনিয়ম প্রধান শিক্ষক এবং পরিচালনা কমিটির সভাপতি দুইজনের যোগসাজসে করেন বলে স্কুলের শিক্ষক, অভিভাবক এবং এলাকাবাসী অভিযোগ করেন। ঘটনার পর বিক্ষুদ্ধ অভিভাবকেরা উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা গুলশান আরাকে বিষয়টি অবহিত করেন। এ আলোকে সহকারী শিক্ষা অফিসার এবিএম নুরুজ্জামানকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়ার নির্দেশ দেয়ার পর সোমবার সরে জমিনে গিয়ে তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়া হয়।

এ ব্যাপারে স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আবুল কাশেম বাচ্চু ও পরিচালনা কমিটির সভাপতি মাষ্টার আবদুল হাই মানিক তাদের বিরুদ্ধে আনীত সকল অভিযোগ অস্বিকার করেন। 

লোকসংবাদ | Loksangbad | The First Bangla Online Newspaper from Noakhali সাজসজ্জা করেছেন মুকুল | কপিরাইট © ২০১৫ | লোকসংবাদ | ব্লগার

Bim থেকে নেওয়া থিমের ছবিগুলি. Blogger দ্বারা পরিচালিত.