সর্বশেষ

নোয়াখালীতে জঙ্গী সন্দেহে হিযবুত তওহীদের ৭ সদস্য গ্রেফতার



জিহাদী বই, পোস্টার, লিফলেট, সিডি, নগদ টাকা ও চেক বই উদ্ধার

আবু নাছের মঞ্জু, নোয়াখালী: 
নোয়খালীর সুধারাম থানা পুলিশ জঙ্গি সন্দেহে রোববার দুপুরে জেলা শহরের  উত্তর ফকিরপুর এলাকার একটি বাড়ি থেকে হিযবুত তওহীদের ৭ সদস্য ও বাড়ির দারোয়ানকে গ্রেফতার করে। পুলিশ এসময় বেশ কিছূ বই, লিফলেট, সিডি, নগদ ১ লাখ ৪০ হাজার টাকা, ২টি চেক বই, ১টি পাসপোর্ট, ৮টি মোবাইল সেট ও ৪টি পরিচয়পত্র উদ্ধার করে। গ্রেফতারকৃতরা হলেন- হিযবুত তওহীদের জেলা আমির মো. মাইন উদ্দিন (২৪), আবদুস ছোবহান (৫৫), মো: রাসেল(১৮), আবদুল ওয়াহিদ মামুন(২৮), সজিব (১৮), হাসনা আক্তার (১৮), নার্গিস আক্তার (২৭) ও হোসনে আরা বেগম (৬০)।
গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে আবদুল ওয়াহিদ মামুনের বাড়ি ফেনীর সোনাগাজী  উপজেলার ভোয়াক গ্রামে। মাইন উদ্দিন, আবদুস ছোবহান, রাসেল, হাসনা, নার্গিস ও হোসনে আরার বাড়ি নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলার পুরকরা গ্রামে। এরা একে অপরের আত্মীয়। আর বাড়ির দরোয়ান সজিবের বাড়ি নোয়াখালী সদর উপজেলার নেয়াজপুর গ্রামে ।


সুধারাম থানার ভারপ্রাপ্ত  কর্মকর্তা (ওসি) মোশাররফ হোসেন তরফদার জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নোয়াখালীর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) মো: মনিরুজ্জামানের নেতৃত্বে পুলি জেলা শহরের ফকিরপুর এলাকার জজ ভবন নামে একটি বাড়ির চতুর্থ তলা থেকে জঙ্গী সন্দেহে হিযবুত তওহীদের ৭ সদস্য ও বাড়ির দারোয়ানকে আটক করে। সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) মো: মনিরুজ্জামান জানান, গত মাসে ফেনী জেলার গোয়েন্দা পুলিশ বেশকিছু নিষিদ্ধ ঘোষিত বইসহ মামুন নামে এক জঙ্গিকে গ্রেপ্তার করে। তার জবানবন্দী ও সেসময় উদ্ধারকৃত বইয়ের মধ্যে পাওয়া মোবাইল নাম্বার ট্র্যাকিং করে পুলিশ সকালে জেলা শহরের উত্তর ফকিরপূরস্থ জজ ভবনের চতুর্থ তলা থেকে হিযবুত তওহীদের ৭ সদস্য ও বাড়ির দারোয়ানকে গ্রেফতার করে।


গ্রেপ্তারকৃতরা জানায়, গত ১০ মার্চ সোনাইমুড়ির পুরকরা গ্রামের একদল মোসল্লি নুরুল হক মেম্বারের বাড়িতে ইমাম বায়োজিদ খান পন্নির নেতৃত্বাধীন হিযবুত তওহীদের সদস্যদের উপর ব্যাপক হামলা, ভাংচুর ও গৃহে অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটায়। সেসময় পুলিশ মো: মাইনুদ্দিনসহ হিযবুত তওহীদের ২৩ জন অনুসারীকে প্রথমে হামলাস্থল থেকে উদ্ধার ও পরে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে সোপর্দ করে। এ ঘটনায় তখন পরস্পর বিরোধী পক্ষ সোনাইমুড়ি থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করে। পরে হিযবুত তওহীদের ২৩ জন অনুসারী আদালত থেকে জামিনে মুক্তি পান। গত ছয় মাস থেকে তারা জজ ভবনের চতুর্থ তলায় ভাড়া থাকছেন।

নোয়াখালীর পুলিশ সুপার হারুনুর রশিদ হাযারী জানান, গ্রেপ্তারকৃতরা ইমাম বায়োজিদ খান পন্নির নেতৃত্বাধীন হিযবুত তওহীদের ব্যানারে থেকে জঙ্গী কার্যক্রম চালাচ্ছে বলে সন্দেহ করা হচ্ছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

লোকসংবাদ | Loksangbad | The First Bangla Online Newspaper from Noakhali সাজসজ্জা করেছেন মুকুল | কপিরাইট © ২০১৫ | লোকসংবাদ | ব্লগার

Bim থেকে নেওয়া থিমের ছবিগুলি. Blogger দ্বারা পরিচালিত.