সর্বশেষ

খেজুরের রসের পায়েশ খেয়ে একই পরিবারের ১২ জন অসুস্থ্য হয়ে হাসপাতালে ভর্তি

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে খেজুরের রসের পায়েশ খেয়ে সোমবার একই পরিবারের নারী ও শিশুসহ ১২ জন অসুস্থ্য হয়েছে। অসুস্থদের নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অসুস্থ্যদের মধ্যে ৩ জনের অবস্থা গুরুতর।
হাসপাতালে চিকিৎসাধীন গৃহবধূ কোহিনুর বেগম জানান, তার ছেলে জিসান সকাল ৯ টার দিকে নিজেদের খেজুর গাছ থেকে দেড় কলস রস নিয়ে আসলে তিনি তাদিয়ে পায়েশ তৈরি করেন। তৈরিকৃত পায়েশ খেয়ে প্রথমে পরিবারের শিশু সন্তান আজগর হোসেন(১২), রাজু(৪), জিসান(৭), পারভীন(২), মিতু(৭), রাব্বি(৫), তাসলিমা(৬) ও আকলিমা(৪) অসুস্থ্য হয়ে পড়ে। এভাবে পর্যায়ক্রমে আনোয়ার হোসেন(৩২), বিটু(১৭), কহিনুর বেগম(২৫) ও পান্না(২২) অসুস্থ হয়ে পড়েন।
অসুস্থ্যদের প্রথমে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে সকলকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গৃহবধূ কোহিনুর জানান, পায়েশ তৈরির আগে রস চাকার সময় তাতে বক মারার ওষুদের প্যাকেট পাওয়া গেলেও ক্ষতিকর কোনকিছু থাকলে  আগুনে তা ধবংস হয়ে যাবে এ বিশ্বাসে বিষয়টি তিনি কাউকে জানাননি। কিন্তু পায়েশ খাওয়ার পর থেকেই প্রথমে শিশুরা পরে পরিবারের বড়রাও একর পর এক বোমি এবং প্রচণ্ড পেটের পিড়ায় অসুস্থ্য হয়ে পড়েন।

নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার(আরএমও) ডা. আব্দুল মোতালেব জানান, খেজুরের রসের মধ্যে কিটনাষক থাকায় বা খাদ্যে বিষক্রিয়ার কারণে এমনটি হতে পারে। তিনি জানান, অসুস্থ্যদের মধ্যে কোহিনুর বেগম, জিসান ও পান্নার অবস্থা গুরুতর।

লোকসংবাদ | Loksangbad | The First Bangla Online Newspaper from Noakhali সাজসজ্জা করেছেন মুকুল | কপিরাইট © ২০১৫ | লোকসংবাদ | ব্লগার

Bim থেকে নেওয়া থিমের ছবিগুলি. Blogger দ্বারা পরিচালিত.